Read by Buddhadeva Bose Online

Title :
Author :
Rating :
ISBN : 17993637
Format Type : Other Book
Number of Pages : 397 Pages
Status : Available For Download
Last checked : 21 Minutes ago!

Reviews

  • Sujan
    2019-04-23 02:45

    সমালোচনাও কখনো সাহিত্য হয়ে উঠতে পারে যদি সমালোচক হন বুদ্ধদেব বসুর মত যুক্তিনিষ্ঠ ও বাস্তবতাঘনিষ্ঠ কিন্তু একই সাথে অনুভূতিপ্রবণ কোন লেখক। তার প্রবন্ধ পড়ার সময় আক্রান্ত হই সেই বোধে যেই বোধ পাই জীবনানন্দের কবিতায় কিংবা মানিকের উপন্যাসে; সেই বোধ একটা তীব্র নেশাতুর আবেগের দ্বারা তাড়িত করে পাঠককে ভাসিয়ে নিয়ে যেতে চায়, কিন্তু বুদ্ধদেবের রচনার সংহতি পরিমিতি এবং বস্তুনিষ্ঠতা এতটাই প্রবল যে পা-কে মাটিতেই রাখতে হয়। চিন্তা এবং আবেগের এই যুগপৎ ক্রিয়াশীলতা অন্য কোন সমালোচকের লেখা পড়ার সময় এতটা অনুভব করিনা, করতে পারি না।আধুনিক কবিদের অনেকে হয়ত জনপ্রিয়তার আড়ালেই থেকে যেতেন, যদিনা বুদ্ধদেব একা সমগ্র আধুনিক কবিতার পৌরহিত্যের দায়িত্ব নিজের কাঁধে তুলে না নিতেন। বিশেষভাবে জীবনানন্দকে প্রতিষ্ঠার যে নিরলস এবং অধ্যবসায়ী চেষ্টা সারা জীবনধরে বুদ্ধদেব করে গেছেন তা সত্যিই দুর্লভ। তার লেখায় দেখি ঝরা পালক, ধূসর পান্ডুলিপি'র বনলতা সেন বের হয়ে যাওয়ার পরও তৎকালীন পাঠকসমাজে জীবনানন্দের তেমন কোন গ্রহণযোগ্যতা গড়ে উঠেনি। কিন্তু বুদ্ধদেব বারেবারে সবাইকে মনে করিয়ে দেন কী অভূতপূর্ব অনুভূতিপ্রবণতার জন্ম দিয়ে চলেছেন এই নতুন কবি, একের পর এক! বাঙলা কবিতায় সম্পূর্ণ নতুন এক ভাষা এবং আবেগের জন্ম দেওয়া এই জীবনানন্দের প্রশংসা করতে গিয়ে বুদ্ধদেব আবেগী হয়েছেন ঠিক, কিন্তু একই সাথে তিনি রীতিমত হিশেব কষিয়ে দেখিয়েছেন কেন জীবনানন্দ শ্রেষ্ঠ, কেন জীবনানন্দ ছাড়া আধুনিক বাঙলা কবিতার আলোচনা অসম্ভব! এ কারণেই বুদ্ধদেবকে ভালো লাগে এতটা- স্তুতিবাক্য রচনায় কার্পণ্য নেই তার, কিন্তু তাই বলে অন্ধবিশ্বাসে দেবতাজ্ঞানে পুজো করাও তার স্বভাববিরুদ্ধ; তাই তার স্তুতির পেছনে খেলো আবেগ নেই, আছে লক্ষ্যভেদী যুক্তি!'কবি' বুদ্ধদেব প্রিয় আগে থেকেই, 'কালের পুতুল' পড়তে পড়তে 'সমালোচক' বুদ্ধদেবকেও মস্তিষ্কের ভেতরের প্রিয় একটা জায়গায় রক্ষিত করে রাখলাম।